আপডেট: ১৮৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২, ২০২৪ |  অনলাইন সংস্করণ তাসকিন চান ‘ম্যাচ জেতানো

উন্নতি করা ব্যাটার তাসকিন চান ‘ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য’
উন্নতি করা ব্যাটার তাসকিন চান ‘ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য’

তাসকিন চান ‘ম্যাচ জেতানো

ভাই ভালো বইলেন’ তাসকিন আহমেদের ব্যাটিং নিয়ে প্রশ্নটা শুনেই মোহাম্মদ মিঠুনকে এই পেসার বললেন এমন।

এরপর উত্তরের মাঝে অনুরোধের সুরে বললেন, ‘ব্যাটিংয়ে যে উন্নতি করেছি সেটা বলেন…’। দুজনের এমন আলাপে হাসলেন উপস্থিত সাংবাদিকরা। মোহাম্মদ মিথুনের সংবাদ সম্মেলনের পর নিজের ব্যাটিং নিয়ে কথা বললেন তাসকিনও।

সিলেট স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে ১৪৩ রান তাড়া করতে নেমে ৮৬ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলে দুর্দান্ত ঢাকা। তখন ব্যাটিংয়ে এসে ৬ চারে ১১ বলে ২৭ রান করেন তাসকিন। যদিও শেষ অবধি দলকে জেতাতে পারেননি। ব্যাটারদের ওপর রাগ থেকেই কি এভাবে মারছিলেন? প্রশ্ন শুনে তাসকিনের জবাব, ‘না! না! রাগ করে মারছিলাম না। তা করলে তো লাগবেও না।

metafore online

আমি আসলে অনুশীলন করছি। আগেও অনেকবার বলেছি, ভালো টেইল এন্ডার হতে চাই। নিয়মিতই অনুশীলন করছিলাম। নিজের ভিত্তি ঠিক রেখে বল অনুযায়ী কানেক্ট করার চেষ্টা করছিলাম। ব্যাটারদের ওপর রাগ করব কেন (হাসি)। ওরা তো আমাদের সতীর্থ। ’ বিপিএলে শুরুটা ভালো হয়েছিল ঢাকার।

প্রথম ম্যাচেই জয় পেয়েছিল তারা।

কিন্তু এরপর টানা ৪ ম্যাচে হারলো তারা। এ নিয়ে হতাশার কথা শুনিয়েছেন তাসকিনও। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ একটু হতাশ। যেহেতু কম রানের ম্যাচও আমরা তাড়া করতে পারিনি। অবশ্যই তাড়া করা উচিত ছিল। আমি নিশ্চিত, আমাদের দলের ব্যাটসম্যানরাও হতাশ। দিন শেষে আসলে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট, সবার ক্যারিয়ারেরও বিষয়। অবশ্যই ভালো অনুভূতি নয়। ’

অনেক আগেই তাসকিন বলেছেন ব্যাটিংয়ে উন্নতির আশার কথা। ‘ভালো টেইল এন্ডার’ হওয়ার লক্ষ্য তখন থেকেই তার। দিন দিন ব্যাটিংয়ে উন্নতি হওয়ায় খুশি তাসকিন। এখন এই পেসারের চাওয়া ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য। তিনি বলেন, ‘এরকম দুই-একটা ইনিংস হলে নিজেরও একটু ভালো লাগে। কারণ মাঝেমধ্যে যখন এমন হয়, তখন মনে হয় যে বাড়তি যে অনুশীলন করছি, পরিশ্রম করছি, এর ফল পেলাম। এখনও অনেক উন্নতি বাকি আছে।

আল্টিমেটলি আমরা টেইল এন্ডাররা যদি উন্নতি করি, এটা আমাদের অনেকগুলো ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য রাখবে।

এটাই চাই। কারণ সামনে আমাদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আছে। তো একটু মেহেনত করলে হয়তো ভালো টেইল এন্ডার হওয়া সম্ভব। ’কাগজে কলমে এবারের বিপিএলে খুব ভালো মানের দল গড়তে পারেনি ঢাকা ডমিনেটর্স। সরাসরি চুক্তিতে ড্রাফটের আগে তাসকিন আহমেদকে নেয় তারা। তবে ড্রাফট খুব একটা কার্যকর হয়নি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা তাসকিন অবশ্য এ নিয়ে মন খারাপ করছেন না। তাসকিনের সোজা কথা পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে আর্থিক সুবিধা যেখানে বেশি সেখানেই খেলবেন। এরপর দল কেমন হল সেটা আসলে টিম ম্যানেজমেন্টই দেখবে। তবে নিজের সেরাটা দিতে কার্পণ্য করতে চান না এই ডানহাতি পেসার। ৬ জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া বিপিএল সামনে রেখে চলছে দলগুলোর প্রস্তুতি।

clipping path tech

আজ (৪ জানুয়ারি) অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমে কথা বলেন তাসকিন। ডমিনেটর্স পেসার বলেন, ‘পেশাদার ক্রিকেটার বলে যেখানে সুযোগ সুবিধা (আর্থিক) বেশি পাই সেখানেই যাই। একটা টিম আইকন (সরাসরি দেশি চুক্তি) হিসেবে একজনকেই নিতে পারে ড্রাফটের আগে।’ ‘তো ড্রাফটের পর টিম ম্যানেজমেন্ট কীভাবে দল করেছে ওটা আসলে কঠিন হয়। তো ঠিক আছে। যারা আছে তারাও সক্ষম।

আমার আসলে আক্ষেপ করা বা অন্য কিছু চিন্তা করার সুযোগই নাই।’ তাসকিন সতীর্থ হিসেবে পাচ্ছেন সৌম্য সরকার, শরিফুল ইসলাম, মোহাম্মদ মিঠুন, আরিফুল হক, মিজানুর রহমান, নাসির হোসেন, আল-আমিন হোসেনদের। খুব বড় তারকা না হলেও ঘরোয়া ক্রিকেটের এসব পারফর্মার নিয়ে আশাবাদী তাসকিন। তিনি বলেন, ‘হয়তো কাগজে কলমে অনেকের চেয়ে ছোট দল।

কিন্তু আনি মনে করি আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটের কিছু খেলোয়াড় আছে যাদের ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য আছে। তারা যদি সেরাটা খেলতে পারে বলা যায় না ভালো করতেও পারে।’ এর আগে বিপিএলে একবার ফাইনাল খেললেও শিরোপা জেতা হয়নি তাসকিনের। তবে ফাইনাল খেলা বা শিরোপা জেতা নিয়ে খুব একটা আক্ষেপ নাই তার। টুর্নামেন্টে ম্যাচ জেতানো স্পেল করতে চান, থাকতে চান সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায়। তাসকিন যোগ করেন, ‘ইচ্ছে আছে টপ উইকেট টেকারদের মাঝে থাকার। সবসময় চাইবো যেন আমার কিছু ম্যাচ উইনিং স্পেল থাকে ও অবদান রাখতে পারি।’

সম্পর্কিত খবর

অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়েদের ইতিহাস

Share.

Leave A Reply

Exit mobile version